রাশিয়ার করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নিরাপদ ও কার্যকর: দ্য ল্যানসেট

কাজ করছে রাশিয়ায় উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন। প্রাথমিক পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে রচিত এক গবেষণা নিবন্ধ থেকে জানা গেছে, ভ্যাকসিনটি নিরাপদ ও কার্যকর। চিকিৎসাবিজ্ঞানবিষয়ক সাময়িকী দ্য ল্যানসেট-এ গত শুক্রবার নিবন্ধটি প্রকাশ করা হয়েছে।

রাশিয়ার সরকার এরই মধ্যে ‘স্পুটনিক-ভি’ নামের এই ভ্যাকসিনের অনুমোদন দিয়েছে। আগস্টের মধ্যে বিশ্বে প্রথম করোনার ভ্যাকসিন আনার ঘোষণা দিয়েছিল দেশটি। গত মাসেই এর অনুমোদন দেওয়া হয়। ঘোষণা অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ভ্যাকসিন আনায় পশ্চিমা দেশগুলোর গবেষকদের সংশয়, রাশিয়ার এই ভ্যাকসিন ততটা কার্যকর হবে না।

দ্য ল্যানসেট-এর নিবন্ধ থেকে জানা যায়, দুই দফার পরীক্ষায় প্রমাণ পাওয়া গেছে, স্পুটনিক-ভি নিরাপদ ও কার্যকর। প্রতি দফার পরীক্ষায় ৩৮ জন স্বেচ্ছাসেবী অংশ নেন। ২১ দিনের ব্যবধানে তাদের গায়ে ভ্যাকসিনটি দুই ডোজে দেয়া হয়। এরপর ৪২ দিন পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, সব স্বেচ্ছাসেবীর শরীরেই প্রথম ২১ দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। তৃতীয় ধাপের পরীক্ষায় অংশ নেবেন ৪০ হাজার বিভিন্ন বয়সের স্বেচ্ছাসেবী, যারা করোনা ভাইরাসের ঝুঁকিতে আছেন।

বিশ্বজুড়ে করোনার ১৭৬টি সম্ভাব্য করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে কাজ চলছে বলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, ডব্লিউএইচও বৃহস্পতিবার জানিয়েছে। নিরাপদ ও কার্যকর প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন প্রয়োগে সমর্থন দেবে না সংস্থাটি। তারা বলছে, ২০২১ সালের মাঝামাঝির আগে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ব্যাপকহারে টিকাদান সম্ভব হবে না।

কিন্তু করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত যুক্তরাষ্ট্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যে ভ্যাকসিন পাওয়ার আশা করছে। অঙ্গরাজ্যগুলোকে ১ নভেম্বরের মধ্যে সম্ভাব্য ভ্যাকসিনের জন্য তৈরি থাকতে বলা হয়েছে।

আপনার মতামত জানান

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন