‘বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের ধারাবাহিকতা বন্ধের চেষ্টা করছি’

35

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার সংসদে বলেছেন, সামরিক স্বৈরশাসক জিয়াউর রহমানের শুরু করা এবং তার স্ত্রী খালেদা জিয়ার প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেয়া বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের উত্তরাধিকার বন্ধে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে। একাদশ জাতীয় সংসদের নবম অধিবেশনে বিরোধীদলীয় উপনেতা জিএম কাদের বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড ইস্যুতে তাঁর দৃষ্টি আকর্ষণ করলে প্রধানমন্ত্রী সমাপনী বক্তব্যে এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আপনারা বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের কথা বলছেন। কিন্তু এটা কে শুরু করেছিল? এটি শুরু হয়েছিল জিয়াউর রহমানের আমলে। তখন আমাদের অনেক নেতাকর্মীর লাশ পাওয়া যায়নি এবং এরপরে, এটি (বিচারবহির্ভূত হত্যা) প্রাতিষ্ঠানিক রূপ লাভ করে (খালেদা জিয়ার আমলে)। আমরা এর ধারাবাহিকতা বন্ধ করার চেষ্টা করছি।’ বর্তমান সরকার এ জাতীয় অপরাধের সাথে জড়িত কাউকে ছাড় দিচ্ছে না বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর সমালোচনা করার ক্ষেত্রে বলেন, সমালোচনা ভাল তবে এটি মনে রাখা উচিত যে, যারা জনগণের সুরক্ষায় কাজ করছেন এবং যেকোনো বিপদে জনসাধারণ যাদের কাছে ছুটে আসছে তারা যেনো আগ্রহ হারিয়ে না ফেলে। আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো মাদক, সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। তারা যেনো এ কাজে তাদের উদ্যম হারিয়ে না ফেলে সেই কথা মনে রাখতে বলেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘একই সাথে আমাদেরও ভাবতে হবে যে, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো তাদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মাদক, সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছে এবং তারা এ ক্ষেত্রে বিশাল সাফল্য অর্জন করেছে।’

আওয়ামী লীগ সরকার কোনো (অপ্রত্যাশিত) ঘটনা ঘটলে কাউকে ছাড় দিচ্ছে না উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, তারা অন্যায়কারীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে