‘দেশীয় প্রজাতির মাছ এবং শামুক সংরক্ষণ ও উন্নয়ন’ শীর্ষক প্রকল্প অনুমোদন

12

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে মাছের অভয়াশ্রম গড়ে তুলতে ‘দেশীয় প্রজাতির মাছ এবং শামুক সংরক্ষণ ও উন্নয়ন’ শীর্ষক প্রকল্প অনুমোদন পেয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় ২০২ কোটি ৪ লাখ টাকা ব্যয়ে ১৬০টি মৎস্য অভয়াশ্রম স্থাপন, ২৪০টি মৎস্য অভয়াশ্রম পুনঃসংস্কার ও রক্ষণাবেক্ষণ, ৩৯২টি দেশীয় প্রজাতির মাছের প্রদর্শনী খামার স্থাপন, ১৫টি শামুকের চাষ প্রদর্শনী স্থাপন ছাড়াও বিভিন্ন উদ্যোগ রয়েছে। মঙ্গলবার শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) এটি এবং আরও ৩টি সংশোধিত প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভার্চুয়াল মিডিয়ামে সভায় সভাপত্বি করেন। সভা শেষে এনইসিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান সাংবাদিকদের জানান, ‘দেশীয় প্রজাতির মাছ এবং শামুক সংরক্ষণ ও উন্নয়ন’ শীর্ষক নতুন প্রকল্পের বরাদ্দ এবং সংশোধিত তিনটি প্রকল্পে বাড়তি বরাদ্দসহ মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৩৪ কোটি ৩৪ লাখ টাকা। নড়াইল, বরিশাল, ঝালকাঠি, গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর, শরীয়তপুর, পিরোজপুর ও বরগুনা জেলার সব উপজেলায় ফরিদপুর জেলার দুইটি উপজেলায় ও বাগেরহাট জেলার দুইটি উপজেলায় প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে বলে সভায় জানানো হয়। প্রকল্পের আওতায় ১১০টি ধানক্ষেতে মাছচাষ প্রদর্শনী স্থাপন, ১০০টি ইউনিট খাঁচায় মাছ চাষ ছাড়াও জেলেদের বিকল্প কর্মসংস্থান এবং প্রশিক্ষণ দেওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, প্রকল্পটিতে ঝিনুক অন্তর্ভুক্ত করা যায় কি না, সে বিষয়টি দেখতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে