জেনেটিক কাঁচি আবিষ্কার করে রসায়নে নোবেল

25

জিনোম এডিটিংয়ের পদ্ধতি উন্নয়নে অবদান রাখার জন্য রসায়নে ২০২০ সালের নোবেল পুরস্কার পাচ্ছেন ফরাসি অধ্যাপক এবং মাইক্রোবায়োলজি, জেনেটিক্স এবং জৈব রসায়নের গবেষক ইমানুয়েল শারপেন্টিয়ার এবং মার্কিন প্রাণরসায়নবিদ এবং বার্কলির ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে একাধারে আণবিক জীববিজ্ঞান, কোষ জীববিজ্ঞান ও রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক জেনিফার এ. ডডনা। জিন প্রযুক্তির সবচেয়ে কার্যকর উপকরণ ক্রিস্প-আর/সিএএস৯ জেনেটিক কাঁচি উদ্ভাবনের জন্য তাঁদের মূল্যায়ন করলো রয়েল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্স।

ক্রিস্প-আর/সিএএস৯ দিয়ে অত্যন্ত নিখুঁতভাবে যেকোনো উদ্ভিদ, প্রাণী বা জীবাণুর ডিএনএ-তে পরিবর্তন আনা যায়। ক্যান্সার থেরাপিতে এবং বংশানুক্রমিকভাবে পাওয়া রোগ প্রতিরোধে এই প্রযুক্তি বৈপ্লবিক সাফল্য আনতে পারে। কোষের ভেতরের অস্বাভাবিকতা ঠিক করার যে কাজ এতদিন প্রায় অসম্ভব ছিল, ক্রিস্প-আর/সিএএস৯ জেনেটিক কাঁচি ব্যবহার করে এখন তা সপ্তাহখানেকের মধ্যে সেরে ফেলা সম্ভব।

ক্রিস্প-আর/সিএএস৯ জেনেটিক কাঁচি উদ্ভাবন করা হয় ২০১২ সালে। এর মাঝে এর ব্যবহার অনেক ক্ষেত্রে ছড়িয়ে পড়েছে। অনেক গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার ও প্রাথমিক গবেষণায় এই উদ্ভাবন অবদান রেখেছে। ছত্রাক, বালাই ও খরা প্রতিরোধী ফসল উৎপাদনে এই আবিষ্কার কাজে লেগেছে। এই জেনেটিক কাঁচি জীববিজ্ঞানকে নতুন যুগে পৌঁছে দিয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে