‘কে আছো জেগে?’

শুক্রবার ধনসম্পদ তথা ঐশ্বর্যের দেবী লক্ষ্মীর পূজা। কোজাগরী লক্ষ্মীপূজা নামেও পরিচিত এ পূজা অনুষ্ঠিত হয় শারদীয় দুর্গাপূজা শেষে প্রথম পূর্ণিমা তিথিতে।

কোজাগরী শব্দটি এসেছে ‘কো জাগর্তী’ থেকে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস দেবী লক্ষ্মী কোজাগরী পূর্ণিমার রাতে প্রতিটি মানুষের গৃহে বলে থাকেন, ‘কে আছো জেগে?’

আধ্যাত্মিক ও পার্থিব উন্নতি, আলো, জ্ঞান, সৌভাগ্য, উর্বরতা, দানশীলতা, সাহস ও সৌন্দর্যের দেবী লক্ষ্মী। বাঙালি বিশ্বাসে লক্ষ্মীদেবীর দুটি হাত। তাঁর বাহন পেঁচা। তাঁর হাতে থাকে শস্যের ভান্ডার। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, পূর্ণিমা রাতে দেবী ধনধান্যে ভরিয়ে দিতে বাড়িতে পূজা গ্রহণ করতে আসেন। তিনি সন্তুষ্ট থাকলে সংসারে অর্থকষ্ট থাকবে না, সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য বাড়বে।

শুক্রবার রাজধানীর ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির, রামকৃষ্ণ মঠ ও রামকৃষ্ণ মিশন, পুরান ঢাকার শাঁখারিবাজার, লক্ষীবাজার, তাঁতীবাজার, ফরাশগঞ্জ, সূত্রাপুর, রাধামাধব বিগ্রহ মন্দির, রাধা গোবিন্দ জিও ঠাকুর মন্দিরসহ দেশের বিভিন্ন মন্দির ও মন্ডপের পাশাপাশি হিন্দুদের ঘরে ঘরে সকালে লক্ষ্মী পূজা হবে। পাশাপাশি ঘরবাড়ির আঙিনায় দেবী লক্ষ্মীর পায়ের ছাপের আল্পনা আঁকা হবে। সন্ধ্যায় ঘরে ঘরে দীপ জ্বালানো হবে।

আপনার মতামত জানান

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন