প্রথম লটে ৩ কোটি ভ্যাকসিন

প্রথম লটে ৩ কোটি করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন ডোজ দেশে আনা হবে বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান। মন্ত্রীর উপস্থিতিতে বাংলাদেশ সরকার, দেশীয় বেসরকারি ওষুধ কোম্পানী বেক্সিমকো ফার্মা ও ভারতীয় কোম্পানী সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়ার মধ্যে অক্সফোর্ড এস্ট্রজেনেকা করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন আমদানী সংক্রান্ত এ সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন আমদানির জন্য দেশের মানুষ অনেকদিন থেকেই অপেক্ষা করছে জানিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, এই চুক্তির মধ্য দিয়ে সে অপেক্ষার অবসান ঘটছে। জাহিদ মালেক আরও জানান, এই ৩ কোটি ভ্যাকসিন ডোজ দুইবার করে প্রতি ব্যক্তিকে দেয়া হবে। এর ফলে প্রতিমাসে ৫০ লাখ করে প্রথমে দেড় কোটি মানুষকে দেড় কোটি ভ্যাকসিন দেয়া হবে। পরবর্তীতে একই পরিমাণ ভ্যাকসিন পুনরায় ২য় ডোজ হিসেবে একইভাবে ২৮ দিন পর দেয়া হবে।

সমঝোতা স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ভারত সরকারের পক্ষে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের নবনিযুক্ত হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী উপস্থিত ছিলেন। বেক্সিমকো ফার্মার পক্ষে বেক্সিমকো ফার্মার ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজমুল হাসান পাপন, এমপি ও সিরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়ার পক্ষে সন্দীপ মুলে সমঝোতা স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট বাংলাদেশের বেক্সিমকো ফার্মার কাছে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন দিলে বেক্সিমকো ফার্মা তা সরকারের কাছে হস্তান্তর করবে।

আপনার মতামত জানান

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন