শিক্ষাঋণ পাবেন রাবির ৪৮০০ শিক্ষার্থী

করোনাকালে অনলাইনে পাঠদানের জন্য স্মার্টফোন কিনতে শিক্ষা ঋণ পাচ্ছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অসচ্ছল ৪ হাজার ৮০০ শিক্ষার্থী। তালিকায় থাকা প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে বিনা সুদে আট হাজার টাকা করে ঋণ দেবে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন। সোমবার দুপুরে ইউজিসি সদস্য অধ্যাপক বিশ্বজিৎ চন্দ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অধ্যাপক বিশ্বজিৎ চন্দ বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের অনলাইন ক্লাসে শতভাগ উপস্থিতি নিশ্চিত করতে ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে আগামী বছরের ৩১ জানুয়ারির মধ্যে এই ঋণ প্রদান করবে ইউজিসি। অধ্যয়নকাল থেকে সনদপ্রাপ্তির পূর্ব পর্যন্ত যেকোনো সময় শিক্ষার্থীরা ঋণ সমান চার কিস্তিতে বা এককালীন পরিশোধ করতে পারবেন। এরই মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ঋণ সংক্রান্ত নোটিস পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এখন বিশ্ববিদ্যালয়গুলো যত দ্রুত প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে তত দ্রুত শিক্ষার্থীরা ঋণ পাবে।’ অধ্যাপক বিশ্বজিৎ চন্দ আরো বলেন, শিক্ষার্থীদের ঋণ দেওয়ার পাশাপাশি ইন্টারনেটের সহজলভ্য প্যাকেজ সরবরাহের জন্য সিম কোম্পানিগুলোর সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে। খুব দ্রুতই সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

করোনা পরিস্থিতিতে গত ২৫ জুন ইউজিসির সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর এক সভায় অনলাইনে ক্লাস নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এরপর জুলাই থেকে দেশের সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আনুষ্ঠানিকভাবে অনলাইনে ক্লাস শুরু হয়। এতে স্মার্টফোন না থাকায় ও ইন্টারনেটের মূল্যবৃদ্ধির ফলে অর্ধেক শিক্ষার্থী ক্লাসে অংশগ্রহণ থেকে বঞ্চিত হতো। শিক্ষার্থীদের এই প্রতিবন্ধকতা দূর করার লক্ষ্যে ৪ নভেম্বর ইউজিসি’র এক ভার্চুয়াল সভায় দেশের সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত ৩৯টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪১ হাজার ৫০১ জন অসচ্ছল শিক্ষার্থীকে বিনা সুদে আট হাজার টাকা করে ঋণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

শেখ ফাহিম আহমেদ
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

আপনার মতামত জানান

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন